শিরোনাম: পরিচয় যেটাই হোক, অপরাধ অনুযায়ী পাপিয়ার বিচার হবে : কাদের       রিজার্ভ চুরির মামলায় প্রতিবেদন ২৯ মার্চ       ১০ লাখ শিক্ষার্থী পাবে ২৯২ কোটি টাকা       ট্রাম্পের সফরের মাঝেই রণক্ষেত্র দিল্লি, পুলিশ সদস্য নিহত       ইরাকে দুটি পৃথক হামলায় চারজন নিহত       দেশে আরও একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে       সিরিয়ায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় নিহত ৬       খুলনায় ব্যবসায়ী অপহরণ, বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৩       অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর সাংবিধানিক অধিকার সুনিশ্চিত করার আহ্বান : এমপি বাদশা       রাজশাহী মহানগর সেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ      
১৬০ দিন পর মুক্তি পেল কাশ্মীরের ৫ নেতা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published : Friday, 17 January, 2020 at 4:33 PM
১৬০ দিন পর মুক্তি পেল কাশ্মীরের ৫ নেতাভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের সময় আটক নেতাদের মধ্যে পাঁচজনকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। ১৬০ দিন গৃহবন্দী রাখার পর গতকাল বৃহস্পতিবার তাদের মুক্তি দেওয়া হয়।
ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, মুক্তিপ্রাপ্ত নেতাদের মধ্যে ন্যাশনাল কনফারেন্সের (এনসি) তিনজন এবং ডেমোক্রেটিক পার্টির (ডিপি) দুজন নেতা রয়েছেন। এদের মধ্যে এনসি’র মুক্তিপ্রাপ্ত নেতারা হলেন- আলতাফ কালু, শওকত গনাই ও সালমান সাগর এবং ডিপি’র দুই নেতা হলেন- নিজামুদ্দিন ভাট ও মুখতার বাধ।
তবে এখনো কাশ্মীরের সাবেক তিন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ,তার ছেলে ওমর আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতিকে মুক্তি দেওয়া হয়নি। সাবেক এই তিন মুখ্যমন্ত্রীকে কবে নাগাদ মুক্তি দেওয়া হবে তাও স্পষ্ট করেনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তবে বৃহস্পতিবার হরি নিবাস থেকে ওমর আব্দুল্লাহকে শ্রীনগরে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।
এ ছাড়া পাঁচ মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর গত বুধবার থেকে কাশ্মীরে আংশিকভাবে ইন্টারনেট সেবা চালু করা হয়েছে। তবে এখনো বেশির ভাগ জায়গায় ইন্টারনেট সুবিধা থেকে বঞ্চিত কাশ্মীরবাসীরা।
সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর টু জি সার্ভিস দেওয়ার জন্য অপারেটর কোম্পানিগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। সেখানে জারিকৃত বিধিনিষেধ শিথিলের অংশ হিসেবে রাজনীতিবীদদের মুক্তি ও ইন্টারনেট সেবা চালু করা হয়েছে।
এর আগে গত বছরের ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ অধিকার ও স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নিয়ে রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে ভাগ করে কেন্দ্রীয় সরকার। এই সিদ্ধান্তকে কেন্দ্র করে সেখানে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করে প্রশাসন।
বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা রদের সময় থেকে ‘সতর্কতামূলক পদক্ষেপ’ হিসেবে আটক করা হয়েছিল সাবেক মুখ্যমন্ত্রীসহ অন্য নেতাদের। ধীরে ধীরে সরকারি সেসব বিধিনিষেধ তুলে নিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই কৌশলের অংশ হিসেবে গত ৩০ ডিসেম্বর সাবেক পাঁচ বিধায়ককে মুক্তি দেওয়া হয়। তবে এখনো বন্দী রয়েছেন ৩০ জনেরও বেশী সাবেক মন্ত্রী ও বিধায়ক।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft