শিরোনাম: কেশবপুরে পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে মেয়র রফিকুল ইসলামের ব্যাপক গণসংযোগ       অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশের সময় মহেশপুর সীমান্ত থেকে ৬ জন আটক       সাতক্ষীরায় করোনা উপসর্গে একদিনে ৪ মৃত্যু       দাকোপে নদী ভাঙ্গনে ওয়াপদা বেড়িবাঁধ মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ       ভোমরা বন্দরের ওপারে আটকা পড়ে পচছে ১৬৫ ট্রাক পেঁয়াজ       নেশাগ্রস্থরা কাটলো কৃষকের ক্ষেতের নেট       সরকারি চাকুরি না করেও ফল বাগান করে ভাগ্য বদল        কলারোয়ায় এমপিওভূক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ লিয়াঁজো ফোরামের কমিটি গঠন       কেশবপুরে প্রতিযোগিতামূলক মাছ শিকার আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে       করোনা: চট্টগ্রাম নতুন আক্রান্ত ৬৪ জন      
রাজনৈতিক প্রভাব সরকারি ক্রয়খাতের মূল সমস্যা : টিআইবি
কাগজ ডেস্ক :
Published : Wednesday, 16 September, 2020 at 4:55 PM
রাজনৈতিক প্রভাব সরকারি ক্রয়খাতের মূল সমস্যা : টিআইবিট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেছেন, সরকারি ক্রয়খাতের মূল সমস্যা রাজনৈতিক প্রভাব। রাজনৈতিক সরকারি ক্রয়খাতে মূল ভূমিকা পালন করছে। এর সঙ্গে স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের যোগসাজশ এবং সিন্ডিকেট এখনো কেন্দ্রীয় ভূমিকা পালন করছে।
বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ‘সরকারি ক্রয়ে সুশাসন: বাংলাদেশে ই-গভর্নমেন্ট প্রোকিউরমেন্ট (ই-জিপি) কার্যকরতা পর্যবেক্ষণ’ শীর্ষক অনলাইনে প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, আমরা যদি সত্যিকার অর্থে ই-জিপি কার্যকর করতে চাই, তাহলে আমি দৃঢ়ভাবে মনে করি, ই-জিপিকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত করতে হবে। একইসঙ্গে স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের যোগসাজশ এবং সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করতেই হবে, এর কোনো বিকল্প নেই।
তিনি বলেন, সরকারি ক্রয়খাতের সঙ্গে জড়িত সব সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর আয় এবং ব্যয়ের হিসাব জমা দিতে হয়, সেটা নিশ্চিত করতে হবে এবং প্রকাশ করতে হবে। ই-জিপির সঙ্গে যারা জড়িত তাদের সবার ক্ষেত্রে এটা বিশেষভাবে প্রযোজ্য। যখন তাদের বৈধ আয়ের সঙ্গে অসামঞ্জস্য সম্পদ পাওয়া যাবে, তখন যেন যথাযথ প্রক্রিয়ায় দৃষ্টান্তমূলক জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা হয়।
টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবত জোরালো ভাবে বলে আসছি, যারা জনপ্রতিনিধি, বা জনগুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে অধিষ্ঠিত ব্যক্তি তাদের কোনোভাবেই সরকারের সঙ্গে ব্যবসায় যাওয়া উচিত নয়। এটা অনৈতিক, নিয়মের বিরুদ্ধে এবং দুর্নীতির সবচেয়ে বড় উপাদান। বাংলাদেশে এটা বন্ধ হোক আমরা সেটাই চাইবো।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, বাংলাদেশে সরকারি ক্রয়খাতে বিশ্বব্যাংক গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে। তবে বিশ্বব্যাংক হাত দিলেই বা টেকনিক্যাল সাপোর্ট দিলেই যে দুর্নীতি বন্ধ হয়ে যাবে এমন কোনো দৃষ্টান্ত নেই। বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে বিশ্বব্যাপী যে প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন হচ্ছে, প্রায় প্রতিটা দেশেই দুর্নীতির ব্যাপকতা রয়েছে। কাজেই এটা কোনো ম্যাজিক বুলেট নয়।
‘সরকারি ক্রয়ে সুশাসন: বাংলাদেশে ই-গভর্নমেন্ট প্রোকিউরমেন্ট (ই-জিপি) কার্যকরতা পর্যবেক্ষণ’ প্রতিবেদনটির গবেষক দলে ছিলেন- রিসার্চ অ্যান্ড পলিসি বিভাগের সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার শাহজাদা এম আকরাম, ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার নাহিদ শারমীন এবং ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার মো. শহিদুল ইসলাম।
প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে অনলাইনে আরো যুক্ত ছিলেন- টিআইবির ব্যবস্থাপনা উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খায়ের, রিসার্চ অ্যান্ড পলিসির পরিচালক মোহাম্মদ রফিকুল হাসান এবং আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন ডিরেক্টর শেখ মঞ্জুর ই আলম প্রমুখ।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft